সোমবার, ১৬ মে ২০২২, ১০:৪৯ পূর্বাহ্ন
ই-পেপার

চাচাদের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার অভিযোগ পৈত্রিক সম্পত্তি ফিরে পেতে এতিম মেয়ের সংবাদ সম্মেলন

রুবিনা আজাদ, আঞ্চলিক প্রতিনিধি, বরিশাল:
আপডেট সময়: মঙ্গলবার, ১৮ জানুয়ারি, ২০২২, ৫:৩৭ অপরাহ্ণ

সম্পত্তি আত্মসাত করতে চাচাদের বিরুদ্ধে বাবাকে হত্যার পর লাশ গুমসহ পুরো সম্পত্তি থেকে বঞ্ছিত করে আত্মসাত করে নেওয়ার ঘটনায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন অসহায় এতিম মেয়ে মৌরিন আক্তার আশামনি।
মঙ্গলবার বেলা সাড়ে এগারোটার দিকে জেলার বাবুগঞ্জ উপজেলার রমজানকাঠী গ্রামের শ্বশুড়ালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে মৌরিন আক্তার আশামনি বলেন,তার বাবা বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়নের মৃত মোফাজ্জেল হক কানু মিয়ার জেষ্ঠ পুত্র এনামুল হক আনাম মিয়া। ১৯৯১ সালে যখন আমার (আশামনি) বয়স মাত্র এক মাস তখন আমার বাবাকে দুস্কৃতকারীরা হত্যা করে লাশ গুম করে। পরবর্তী সময়ে আমার বয়স যখন তিন বছর তখন আমার মা রাশিদা বেগমের অন্যত্র বিয়ে হয়ে যায়। এরপর আমি দাদি হাসমত আরা বেগমের (এখনও জীবিত) কাছে বাবার বাড়িতেই বড় হই। একপর্যায়ে পাশ্ববর্তী রমজানকাঠী গ্রামে আমাকে সামাজিকভাবে বিয়ে দেওয়া হয়।
আশামনি বলেন, সম্প্রতি সময়ে আমার বাবার নামে প্রতিষ্ঠিত ‘আনাম স্মৃতি সংঘ’র স্থায়ী ভবন নির্মানের জন্য বাড়িতে গেলে আমার চাচা ছানাউল হক ছানা মিয়া বাঁধা প্রদান করেন। তিনিসহ অন্য চাচা রেজাউল হক ও সাইনুল হক মিয়া জানায়, আমার বাবার (এনাম মিয়া) কোন সম্পত্তি নেই। পরবর্তীতে খোঁজনিয়ে জানতে পারি, আমার চাচারা বাবাকে ওয়ারিশ থেকে বঞ্ছিত করে তার (বাবার) প্রায় তিন একর ৩১ শতক সম্পত্তি তাদের নামে রের্কড করিয়ে নিয়েছেন। একপর্যায়ে চাচাদের কাছে সম্পত্তি ফিরে পেতে বছরের পর বছর ঘুরেও কোন সুফল মেলেনি। উল্টো তারা বিভিন্নধরনের ভয়ভীতিসহ হুমকি প্রদর্শন অব্যাহত রাখে।
উপায়অন্তুর না পেয়ে গত বছরের ১৭ জানুয়ারি পৈত্রিক সম্পত্তি ফিরে পেতে বরিশাল আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। এরপর থেকে চাচারা আমার ওপর আরো ক্ষিপ্ত হয়ে মামলা প্রত্যাহারের জন্য হুমকি প্রদর্শন অব্যাহত রাখে।
আশামনি বলেন, আমার ধারনা বাবার অঢেল সম্পত্তি আত্মসাত করতে আমার চাচারা নাটকীয়ভাবে আমার বাবাকে হত্যা করে লাশ গুম করেছে। বাবা ও মায়ের স্নেহ ভালবাসা থেকে আমাকে বঞ্ছিত করে এতিম বানিয়েছে। পরবর্তীতে তারা আমারমতো এতিমের পুরো সম্পত্তি আত্মসাত করে নিয়েছে।
তিনি বলেন, কৌশলে চাচারা তাদের অবৈধ হুন্ডি ব্যবসাসহ অন্যান্য কর্মকান্ড পরিচালনা করতে অনুমতি না নিয়ে আমার নামে আশা পোল্টি খামার ও মের্সাস আশা ড্রাগ হাউজ প্রতিষ্ঠা করে এবি ব্যাংক এবং মের্সাস আশা স্টোর্সের নামে ব্র্যাক বাংকে হিসাব নাম্বার খুলে কোটি কোটি টাকা লেনদেন করছেন। বর্তমানে তারা ঢাকা ও বরিশালে অট্টালিকা নির্মান করেছেন। অথচ তারা আমাকে পৈত্রিক সব সম্পত্তি থেকে বঞ্ছিত করেছেন। তাই একজন এতিম অসহায় সন্তান হিসেবে আমি (আশামনি) আমার পৈত্রিক সম্পত্তি ফিরে পেতে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, মন্ত্রী আবুল হাসানাত আব্দুল্লাহ, স্থানীয় সাংসদ ও উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দের কাছে জোর দাবি করছি। পাশাপাশি চাচাদের সকল অপকর্মের তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বরিশাল, বাবুগঞ্জ ও গৌরনদীর বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সংবাদ কর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।
আশামনির সকল অভিযোগ অস্বীকার করে বীরশ্রেষ্ঠ জাহাঙ্গীর নগর ইউনিয়ন জাতীয় পার্টির আহবায়ক ছানাউল হক ছানা মিয়া বলেন, একটি মহল আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার ছড়াতে ভাতিজি আশামনিকে ব্যবহার করছে। জমি রেকর্ডের সময় আশামনি নাবালিকা থাকায় তার নামে রেকর্ড করানো যায়নি। যখন সে (আশামনি) মামলা দায়ের করেছে তখন আদালতের মাধ্যমে তার সম্পত্তি ফিরিয়ে দেওয়া হবে।

 

#চলনবিলের আলো / আপন


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এই বিভাগের আরও খবর পড়ুন

আজকের দিন-তারিখ

  • সোমবার (সকাল ১০:৪৯)
  • ১৬ই মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
  • ১৫ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি
  • ২রা জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ (গ্রীষ্মকাল)
এক ক্লিকে বিভাগের খবর